1. sjahedpoet@gmail.com : Jahed Sarwar : Jahed Sarwar
  2. admin@www.dhakartime.com : ঢাকার টাইম :
সর্বশেষ :
নানাকে খুন করায় পুলিশের হাতে নাতি আব্দুল খালেক আটক মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর কাছে রক্ত কান্ডারী স্বেচ্ছাসেবীদের দাবী সমূহঃ- নীলফামারী ডিমলায় ভুয়া পরীক্ষার্থীর কারাদণ্ড সম্প্রীতি বিনষ্টের জন্য দায়ী কতিপয় অমানুষ-হুইপ স্বপন সিরাজগঞ্জে বিএনপি জামাতের নৈরাজ্য ও পুলিশকে হামলার প্রতিবাদে ১০ নং সয়দাবাদ ইউনিয়নের ৩ নং ওয়ার্ডের প্রতিবাদ সভা অনুষ্ঠিত রাজারহাটে নৌকাবাইচে হাজারও মানুষের ঢল নোয়াখালীর বেগমগঞ্জে বিএনপির ভাইস-চেয়ারম্যান “বুলু” উপর হামলার প্রতিবাদ সমাবেশ নান্দাইলে আগুনে পুড়ে ৫ ব্যবসায়ির স্বপ্ন পুড়ে ছাই সোনারগাঁওয়ে স্বেচ্ছাসেবীদের ‘ভয়েস অব ভলান্টিয়ার’ আলোচনা সভা নবীগঞ্জে শারদীয় দুর্গাপূজা উপলক্ষে পুলিশের মতবিনিময় সভা অনুষ্ঠিত

পঞ্চগড় খাদ্যবান্ধব কর্মসূচির উদ্বোধন প্রেস ব্রিফিং

  • প্রকাশিত: বুধবার, ৩১ আগস্ট, ২০২২
  • ১২৩ বার পড়া হয়েছে

  

মোঃ বাবুল হোসেন পঞ্চগড় ঃ

পঞ্চগড় জেলার পাঁচ উপজেলা ও তিনটি পৌরসভাসহ ৪৩টি ইউনিয়নের ১ লাখ ২৬ হাজার নিম্ন আয়ের মানুষকে স্বল্পমূলে খাদ্য সামগ্রী প্রদান করা হবে। জাতির পিতার বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের স্বপ্ন ছিল-আমার দেশের প্রতিটি মানুষ খাদ্য পাবে। তারঁই ধারাবাহিকতায় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার এই উদ্যোগ। আগামী ১সেপ্টেম্বর থেকে ওএমএস, টিসিবি ও খাদ্যবান্ধব কর্মসূচির উদ্বোধন উপলক্ষে বুধবার দুপুরে জেলা প্রশাসকের সম্মেলন কক্ষে আয়োজিত এক প্রেসব্রিফিংয়ে জেলা প্রশাসক মো. জহুরুল ইসলাম এ কথা বলেন।

জেলা প্রশাসক বলেন, বুধবার (১সেপ্টেম্বর) থেকেই সরকারি ছুটির দিন ব্যাতীত পাঁচ উপজেলা ও তিনটি পৌরসভায় ১৮ জন ডিলারের মাধ্যমে ৩০ মেট্রিক টন চাল বিতরণ করা হবে। প্রত্যেকে ৩০ টাকা কেজি দরে ৫ কেজি চাল কিনতে পারবেন। এতে প্রতিদিন ৬ হাজার মানুষ এই সুবিধা পাবে। এছাড়া চতুর্থ ধাপে ওএমএসের ডিলারদের মাধ্যমে টিসিবির পণ্য হিসেবে প্রতি কেজি চিনি ৫৫ টাকা, প্রতি লিটার সোয়াবিন তেল ১১০ টাকা, প্রতি কেজি মশুর ডাল ৬৫ টাকা দরে কিনতে পারবে। টিসিবির কার্ডধারীরা অগ্রাধিকার ভিত্তিতে দুই দফায় ১০ কেজি চাল কিনতে পারবে। খাদ্যবান্ধব কর্মসূচির আওতায় নিবন্ধকৃত ৫১ হাজার ৩ জন নিম্ন আয়ের মানুষ জেলার ৮৮ জন ডিলারের মাধ্যমে ১৫ টাকা কেজি দরে ৩০ কেজি চাল কিনতে পারবে।

জেলা প্রশাসক জানান, জেলায় পর্যাপ্ত চাল মজুদ রয়েছে। প্রত্যেক ডিলারের দোকানে পুলিশ ও আনসার এবং উপজেলা পর্যায়ের একজন কর্মকর্তা মনিটরিংয়ের দায়িত্বে থাকবে। এসব কর্মসূচি ৩০ নভেম্বর পর্যন্ত চলবে।

প্রেস বিফ্রিংয়ে অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (সার্বিক) আজাদ জাহান, জেলা খাদ্য নিয়ন্ত্রক রেজাউল হক খন্দকারসহ উপস্থিত ছিলেন।

সংবাদটি শেয়ার করুন

আরো সংবাদ পড়ুন

আরো লেখাসমূহ

ওয়েবসাইট ডিজাইন প্রযুক্তি সহায়তায়: ইয়োলো হোস্ট

%d bloggers like this: